তথ্যধারা প্রতিবেদকঃ তিস্তার পানি বৃদ্ধি থাকায় নীলফামারীর ডিমলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। আজ ১৩ জুলাই সোমবার তিস্তার পানি বিপদসীমার উপরে থাকায় রেড এলার্ট জারী করা হয়েছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে হাজার হাজার মানুষ। উজানের পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষণে তিস্তার পানি আজ সকাল থেকে বিপদসীমার (৫৩ দশমিক ১২ সেন্টিমিটার) ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা ও ভাঙনের কারণে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। জনপ্রনিধিদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, পানিবন্দি হয়ে পড়েছে উপজেলার ১০ হাজার পরিবার।জানাগেছে রোববার সন্ধ্যা থেকে সোমবার সকাল ৯টা পর্যন্ত তিস্তার পানি বিপদসীমার (৫৩ দশমিক ০৪ সেন্টিমিটার) ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিস্তা ব্যারাজের সবকটি জলকপাট খুলে দিয়েছে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়া বিভাগের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র (পাউবো)। বন্যার কারণে উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন টেপাখড়িবাড়ি, পূর্বছাতনাই, ঝুনাগাছচাপানী, খালিশা চাপানী, খগাখড়িবাড়ী ও গয়াবাড়ী ইউনিয়নের ৮ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। ডালিয়া (পাউবো) ডালিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, রেড এলার্ট জারিসহ তিস্তা অববাহিকার লোকজনকে নিরাপদ স্থানে নেওয়ার জন্য পাইবোর পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে।ও পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।