তথ্যধারা প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার বাগানবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুস্তম আলীর জনপ্রিয়তা নষ্ঠ করতে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগনেতা শাহাদাত হোসেন সাজু আধিপত্য বিস্তারের কোন্দল মাঠে গড়িয়েছে। প্রকাশ্য বাগানবাজার ইউনিয়ন পরিষদে হামলা চালিয়ে,এবং সাজু বাহিনীর হাতে চেয়ারম্যান সমর্থক হতদরিদ্র কৃষক অহিদুর রহমান হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে কাঁদা ছোড়াছুড়ি শুরু করেছে। আর তা ক্রমান্বয়ে ছড়িয়ে পড়ছে ইউনিয়ন, ওয়ার্ড ও গ্রাম পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যেও। একদিকে রয়েছে ৬ বারের নির্বাচিত জনপ্রিয় চেয়ারম্যান রুস্তম আলী ও অপরদিকে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগনেতা শাহাদাত হোসেন সাজু। দুজনের দ্বন্দ্ব চরম আকার ধারণ করেছে। গত ১৩ জুলাই রাতে মোবাইলে ডেকে নিয়ে বাগানবাজারের গজারিয়া এলাকায় চেয়ারম্যান সমর্থিত দিনমজুর অহিদুর রহমান (৪৭) কে মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে হত্যা করে সাজু সমর্থিত লোকজন। জানাগেছে বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা মার্কার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় সাজু বাহিনীর রোষানলে পড়েছেন চেয়ারম্যান রুস্তম আলী। বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আবু তৈয়ব নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন বলে বাগানবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুস্তম আলী তার এলাকায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী নাজিম মুহুরীর পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার কারনে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের ডাঃ শাহাদাত হোসেন সাজুর সাথে সংঘাত লেগেই আছে। বাগানবাজার এলাকাটি সীমান্ত এলাকা হওয়ায় সীমান্তে চোরাচালান ব্যাবসা পাকাপোক্ত করতে সাজু এই এলাকায় একক নিয়ন্ত্রণ নিতে উঠে পরে লেগেছে। অন্যদিকে বার বার নির্বাচিত ৩০ বছর চেয়ারম্যান পদে থেকে এলাকাবাসীর কাছে রুস্তম আলীর জনপ্রিয়তা বেশি বলে ভুজপুরস্থ বাগানবাজার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে সাজুর হামলা ও বিভিন্নভাবে আধিপত্য বিস্তারের দ্বন্দ্বের বিষয়টি ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে এবং আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে বাগানবাজার তথা ফটিকছড়ির রাজনৈতিক অঙ্গনে।