তথ্যধারা প্রতিবেদক : গাজীপুরের শ্রীপুরে মাসহ তিন সন্তানকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় প্রবাসী রেজোয়ান হোসেন কাজলের বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় মামলা করেছেন। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে এ মামলা করা হয়। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাসেল শেখ জানান, মা, দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে শুধু গলা কেটেই হত্যা করা হয়নি, চারজনের শরীরে একাধিক ছুরির আঘাত রয়েছে। কী কারণে এমন হত্যাকান্ড ঘটতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ঘরে ডাকাতির কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। ঘরের আলমারিসহ অন্যান্য জিনিস সুরক্ষিত ছিল। প্রেমঘটিত বা অন্য কোনো বিষয় নিয়ে এমন হত্যাকান্ড ঘটল কি-না তা উদঘাটনে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে। এদিকে এলাকায় এমন মর্মস্পর্শী রোমহর্ষক ও নারকীয় ঘটনায় আবদার গ্রামের বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। নিহতের প্রতিবেশী সেলিম উদ্দিন জানান, তাদের সঙ্গে সবসময়ই ওঠাবসা ছিল। তারা খুব আন্তরিক ছিলেন। এই এলাকায় প্রায় দেড় যুগ ধরে তারা বসবাস করছেন। এভাবে কেউ তাদের হত্যা করবে ভাবিনি। প্রবাসী কাজলের ভাগনে মেহেদী হাসান জানান, আইনগত প্রক্রিয়া শেষে চারজনের লাশ ময়মনসিংহের পাগলা থানার গোলাবাড়ি গ্রামে দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। সকাল থেকে কবর খোঁড়া শুরু হয়ে এখন প্রায় শেষ হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানা পুলিশের ওসি লিয়াকত আলী জানান, এ ঘটনায় নিহতের শ্বশুর আবুল হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মামলা করেছেন। হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।